ঢাকা ১১:১৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম :

অ্যাসিডিটি দূর করার সহজ উপায়

লাইফস্টাইল  ডেস্ক :   সারা দিন পরিশ্রমের পর কিছুটা আলস্য থেকেই শরীর-স্বাস্থ্যের প্রতি নিখুঁত যত্ন নেওয়ার সময় অনেকেরই  হয়ে ওঠে না। কাজের ফাঁকে খাওয়ার অনিয়ম,  রাস্তাঘাটের ফাস্টফুড বা অফিসপাড়ার সস্তা রাস্তার খাবারেই আস্থা রাখতে বাধ্য হতে হয়। এর ফলে গ্যাসট্রাইটিস বা অম্বল হয়ে ওঠে আপনার সঙ্গী।

বহু মানুষকেই নিয়মিত হজমের ওষুধ খেতে হয়। কেউ বা ঘরোয়া উপায়ে তা কমাতে উদ্যোগী হন। বুক জ্বালা, চোঁয়া ঢেকুর এ সবের সমস্যা তাতেও পুরোপুরি কাটে না। সারা দিনের খাওয়াদাওয়াই কেবল নয়, ঘুমের পরিমাণ, শ্রম সব কিছুর উপরেই হজমপ্রক্রিয়া অনেকটা নির্ভর করে।

দিনের পর দিন হজমের ওষুধ খেয়ে চলা কিন্তু কোনও কাজের কথা নয়। বরং নিজের কিছু অভ্যাস রপ্ত করতে পারলেই এই বদহজম বা গ্যাস-অম্বলের সমস্যা থেকে মুক্ত থাকা যায়। চলুন জেনে নেয়া যাক কিভাবে ঘরোয়াভাবে অ্যাসিডিটির সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন।

দারচিনি:  আধা চা চামচ দারচিনি পাউডার এক গ্লাস গরম দুধে নিয়ে ভালো ভাবে মিশিয়ে নিন। এরপর একটু ঠাণ্ডা হলে পান করুন। ইচ্ছা করলে এতে কিছু মধু মিশিয়ে নেয়া যেতে পারে। এছাড়া দারচিনির চা খাওয়া যেতে পারে। এজন্য গরম পানিতে পাউডার মিশিয়ে কিছুক্ষণ নেড়ে এরপর পান করুন।
অ্যাপেল সিডার ভিনেগার:  প্রথমে ২ চা চামচ ভিনেগার এক গ্লাস গরম পানিতে দিয়ে ভালভাবে মিশিয়ে নিন। এরপর এটিকে স্বাভাবিকভাবে ঠাণ্ডা করে নিয়ে পান করুন।
আদা:  প্রতিদিন খাবার পর এক টুকরো আদা চিবিয়ে খান। এতে আপনার গ্যাসের সমস্যা থাকবে না। এক চামচ আদা বেটে তা গরম পানিতে দিয়ে ফুটিয়ে নিন। এর চা তৈরি করে দিনে ২ বার পান করুন।
মৌরি:  কিছু পরিমাণ মৌরি পানিতে দিয়ে ৫ মিনিট ধরে গরম করুন এরপর এটিকে ছেঁকে ঠাণ্ডা করে পান করুন। আপনি চাইলে এটি চিবিয়ে খেতে পারেন।
পুদিনা পাতা:  কিছু ফ্রেস পুদিনা পাতা এক কাপ গরম পানিতে নিয়ে ৫ মিনিট ধরে গরম করুন। এরপর এটিকে ছেঁকে কিছু মধু দিন।দিনে ২-৩ বার পান করুন। তাড়াতাড়ি আরাম পেতে কিছু পুদিনা পাতা চিবিয়ে খেতে পারেন।
রসুন:  প্রতিদিন কিছু রসুন চিবিয়ে খান এতে গ্যাস হবার সম্ভাবনা কমে যাবে।
Tag :
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে চিকিৎসার চেক হস্তান্ত, সাবেক এম পি নুরুল আমিন রুহুল

অ্যাসিডিটি দূর করার সহজ উপায়

আপডেট টাইম : ০১:১২:৩১ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৯

লাইফস্টাইল  ডেস্ক :   সারা দিন পরিশ্রমের পর কিছুটা আলস্য থেকেই শরীর-স্বাস্থ্যের প্রতি নিখুঁত যত্ন নেওয়ার সময় অনেকেরই  হয়ে ওঠে না। কাজের ফাঁকে খাওয়ার অনিয়ম,  রাস্তাঘাটের ফাস্টফুড বা অফিসপাড়ার সস্তা রাস্তার খাবারেই আস্থা রাখতে বাধ্য হতে হয়। এর ফলে গ্যাসট্রাইটিস বা অম্বল হয়ে ওঠে আপনার সঙ্গী।

বহু মানুষকেই নিয়মিত হজমের ওষুধ খেতে হয়। কেউ বা ঘরোয়া উপায়ে তা কমাতে উদ্যোগী হন। বুক জ্বালা, চোঁয়া ঢেকুর এ সবের সমস্যা তাতেও পুরোপুরি কাটে না। সারা দিনের খাওয়াদাওয়াই কেবল নয়, ঘুমের পরিমাণ, শ্রম সব কিছুর উপরেই হজমপ্রক্রিয়া অনেকটা নির্ভর করে।

দিনের পর দিন হজমের ওষুধ খেয়ে চলা কিন্তু কোনও কাজের কথা নয়। বরং নিজের কিছু অভ্যাস রপ্ত করতে পারলেই এই বদহজম বা গ্যাস-অম্বলের সমস্যা থেকে মুক্ত থাকা যায়। চলুন জেনে নেয়া যাক কিভাবে ঘরোয়াভাবে অ্যাসিডিটির সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন।

দারচিনি:  আধা চা চামচ দারচিনি পাউডার এক গ্লাস গরম দুধে নিয়ে ভালো ভাবে মিশিয়ে নিন। এরপর একটু ঠাণ্ডা হলে পান করুন। ইচ্ছা করলে এতে কিছু মধু মিশিয়ে নেয়া যেতে পারে। এছাড়া দারচিনির চা খাওয়া যেতে পারে। এজন্য গরম পানিতে পাউডার মিশিয়ে কিছুক্ষণ নেড়ে এরপর পান করুন।
অ্যাপেল সিডার ভিনেগার:  প্রথমে ২ চা চামচ ভিনেগার এক গ্লাস গরম পানিতে দিয়ে ভালভাবে মিশিয়ে নিন। এরপর এটিকে স্বাভাবিকভাবে ঠাণ্ডা করে নিয়ে পান করুন।
আদা:  প্রতিদিন খাবার পর এক টুকরো আদা চিবিয়ে খান। এতে আপনার গ্যাসের সমস্যা থাকবে না। এক চামচ আদা বেটে তা গরম পানিতে দিয়ে ফুটিয়ে নিন। এর চা তৈরি করে দিনে ২ বার পান করুন।
মৌরি:  কিছু পরিমাণ মৌরি পানিতে দিয়ে ৫ মিনিট ধরে গরম করুন এরপর এটিকে ছেঁকে ঠাণ্ডা করে পান করুন। আপনি চাইলে এটি চিবিয়ে খেতে পারেন।
পুদিনা পাতা:  কিছু ফ্রেস পুদিনা পাতা এক কাপ গরম পানিতে নিয়ে ৫ মিনিট ধরে গরম করুন। এরপর এটিকে ছেঁকে কিছু মধু দিন।দিনে ২-৩ বার পান করুন। তাড়াতাড়ি আরাম পেতে কিছু পুদিনা পাতা চিবিয়ে খেতে পারেন।
রসুন:  প্রতিদিন কিছু রসুন চিবিয়ে খান এতে গ্যাস হবার সম্ভাবনা কমে যাবে।