০৯:৫৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

‘ভারত আবারও জয়ী হলো’ বিশাল জয়ের পর মোদির প্রথম টুইট

  • Reporter Name
  • Update Time : ১০:০৯:০৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০১৯
  • ২৮০ Time View

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :   আবারও নরেন্দ্র মোদি। ভারতের মানুষ তাঁকেই আবার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চান। আবারও সরকার গঠন করবে বিজেপি নেতৃত্বাধীন জোট। জোটের বাইরে দলগতভাবে আরো বেশি শক্তি অর্জন করেছে বিজেপি। ২০১৪ সালে এককভাবে ২৮২টি আসনে জয় পায় দলটি। ২০১৯ সালে এখন পর্যন্ত প্রাপ্ত ফলে দেখা যায়, ২৯৪টি আসনে এগিয়ে আছে বিজেপি।

আরো পড়ুন :  টেকনাফে আটকের পর ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত

আরো পড়ুন :  বনশ্রীতে কাভার্ডভ্যান চাপায় ঢাকা কলেজের ছাত্র নিহত

আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের ভোট গণনা শুরু হয়। ভোটের ফল পুরো ঘোষণার আগেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ২৬ মে সরকার গঠনের ইচ্ছা প্রকাশ করলেন। ভোটের ফলে বিজেপির জয়জয়কার হতেই নয়াদিল্লিতে বিজেপির সদর দপ্তরে যাওয়ার কথাও জানান মোদি। সেখানে তিনি বিজেপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। সন্ধ্যা ৬টার দিকে দেশবাসীর উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আগামীকাল শুক্রবার দলের পার্লামেন্টারি বোর্ডের সভা ডেকেছেন তিনি।

এরই মধ্যে টুইট করে দেশবাসীকে স্বাগত জানিয়েছেন মোদি। টুইটারে তিনি লিখেছেন, সবার সাথে + সবার উন্নয়ন + সবার বিশ্বাস = বিজয়ী ভারত।

লোকসভার ৫৪২টি আসনের ফল ঘোষণা হতেই দেখা যায় ৩৫০টি আসনে এগিয়ে বিজেপি নেতৃত্বাধীন জোট ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্স (এনডিএ)। যার মধ্যে বিজেপি একাই এককভাবে ম্যাজিক ফিগার ২৭১টি আসন পেরিয়ে গেছে। বিজেপি এককভাবেই প্রাথমিকভাবে এগিয়ে রয়েছে ২৯৪টি আসনে।

অন্যদিকে, কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন জোট ইউনাইটেড প্রগ্রেসিভ অ্যালায়েন্স (ইউপিএ) জোট পেয়েছে মাত্র ৮৫টি আসন। যার মধ্যে এককভাবে কংগ্রেস এগিয়ে রয়েছে প্রায় ৫২টি আসনে। অন্যরা এগিয়ে আছে ১০৭টি আসনে।

চলতি নির্বাচনে বিজেপির সাফল্যের পেছনে নরেন্দ্র মোদির পাশাপাশি দলটির সভাপতি অমিত শাহের নাম উচ্চারিত হচ্ছে। অমিত শাহ নিজেও গান্ধীনগর এলাকায় পাঁচ লাখেরও বেশি ভোটে এগিয়ে আছেন। অমিত শাহ রাজ্যসভার সদস্য। এবার তিনি লোকসভায় প্রবেশ করতে যাচ্ছেন।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ইন্টারন্যাশনাল রিলেশনস রিপোর্টার্স ফোরামের শ্রদ্ধা

‘ভারত আবারও জয়ী হলো’ বিশাল জয়ের পর মোদির প্রথম টুইট

Update Time : ১০:০৯:০৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :   আবারও নরেন্দ্র মোদি। ভারতের মানুষ তাঁকেই আবার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চান। আবারও সরকার গঠন করবে বিজেপি নেতৃত্বাধীন জোট। জোটের বাইরে দলগতভাবে আরো বেশি শক্তি অর্জন করেছে বিজেপি। ২০১৪ সালে এককভাবে ২৮২টি আসনে জয় পায় দলটি। ২০১৯ সালে এখন পর্যন্ত প্রাপ্ত ফলে দেখা যায়, ২৯৪টি আসনে এগিয়ে আছে বিজেপি।

আরো পড়ুন :  টেকনাফে আটকের পর ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত

আরো পড়ুন :  বনশ্রীতে কাভার্ডভ্যান চাপায় ঢাকা কলেজের ছাত্র নিহত

আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের ভোট গণনা শুরু হয়। ভোটের ফল পুরো ঘোষণার আগেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ২৬ মে সরকার গঠনের ইচ্ছা প্রকাশ করলেন। ভোটের ফলে বিজেপির জয়জয়কার হতেই নয়াদিল্লিতে বিজেপির সদর দপ্তরে যাওয়ার কথাও জানান মোদি। সেখানে তিনি বিজেপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। সন্ধ্যা ৬টার দিকে দেশবাসীর উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আগামীকাল শুক্রবার দলের পার্লামেন্টারি বোর্ডের সভা ডেকেছেন তিনি।

এরই মধ্যে টুইট করে দেশবাসীকে স্বাগত জানিয়েছেন মোদি। টুইটারে তিনি লিখেছেন, সবার সাথে + সবার উন্নয়ন + সবার বিশ্বাস = বিজয়ী ভারত।

লোকসভার ৫৪২টি আসনের ফল ঘোষণা হতেই দেখা যায় ৩৫০টি আসনে এগিয়ে বিজেপি নেতৃত্বাধীন জোট ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্স (এনডিএ)। যার মধ্যে বিজেপি একাই এককভাবে ম্যাজিক ফিগার ২৭১টি আসন পেরিয়ে গেছে। বিজেপি এককভাবেই প্রাথমিকভাবে এগিয়ে রয়েছে ২৯৪টি আসনে।

অন্যদিকে, কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন জোট ইউনাইটেড প্রগ্রেসিভ অ্যালায়েন্স (ইউপিএ) জোট পেয়েছে মাত্র ৮৫টি আসন। যার মধ্যে এককভাবে কংগ্রেস এগিয়ে রয়েছে প্রায় ৫২টি আসনে। অন্যরা এগিয়ে আছে ১০৭টি আসনে।

চলতি নির্বাচনে বিজেপির সাফল্যের পেছনে নরেন্দ্র মোদির পাশাপাশি দলটির সভাপতি অমিত শাহের নাম উচ্চারিত হচ্ছে। অমিত শাহ নিজেও গান্ধীনগর এলাকায় পাঁচ লাখেরও বেশি ভোটে এগিয়ে আছেন। অমিত শাহ রাজ্যসভার সদস্য। এবার তিনি লোকসভায় প্রবেশ করতে যাচ্ছেন।