ঢাকা ০৬:০৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম :

দুই ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতে নিলো ভারত

স্পোর্টস ডেস্ক :  তৃতীয় ওয়ানডেতে নিউজিল্যান্ডকে সাত উইকেটে হারিয়ে দুই ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতল ভারত। এই জয়ে পাঁচ ম্যাচ সিরিজে ৩-০-তে এগিয়ে গেছে সফরকারীরা। ভারতের ম্যাচ জয়ের নায়ক পেসার মোহাম্মদ শামি। ফলে ২০০৯ সালের পর আবারও নিউজিল্যান্ডের মাটিতে ওয়ানডে সিরিজ জিতলো সফরকারীরা।

অস্ট্রেলিয়া সফরের শুরু থেকেই দুর্দান্ত ফর্মে ছিল ভারতীয় দল। নিউজিল্যান্ডের মাটিতেও অপ্রতিরোধ্য। প্রথম দুই ম্যাচের মতো তৃতীয় ম্যাচেও কোনো রকম লড়াই করতে পারেনি স্বাগতিকরা।

টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় নিউজিল্যান্ড। এদিন ভারতীয় দলে দুটি পরিবর্তন করা হয়। বিতর্ক শেষে জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েই সরাসরি প্রথম একাদশে ঢুকে যান হার্দিক পাণ্ডিয়া। হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটের জন্য ধোনিকে বিশ্রাম দেয়া হয়, তার জায়গায় দলে আসেন দিনেশ কার্তিক।

প্রথমে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি কিউইদের। এদিনও ব্যর্থ হন দুই ওপেনার। গাপটিলদের ব্যর্থতার পর অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন এবং রস টেলর ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছিলেন। দলগত ৫৯ রানের মাথায় যুযবেন্দ্র চাহালের বলে দুর্দান্ত ক্যাচ নিয়ে তাকে সাজঘরে ফেরান হার্দিক।

২৪৩ রানের জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে ওপেনার রোহিত শর্মা ৭৭ বলে ৬২ রান ও শিখর ধাওয়ান ২৭ বলে ২৮ রানের ইনিংস খেলে সাজঘরে ফেরেন। পরে অধিনায়ক বিরাট কোহলি ৭৪ বলে ৬০ রানের ইনিংস খেলেন। কোহলি সাজঘরে ফিরলেও আম্বাতি রায়ডু ও দিনেশ কার্তিক যথাক্রমে ৪০ ও ৩৮ রানে অপরাজিত থেকে সাত ওভার হাতে রেখেই দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান। ইনিংস শেষে ভারতের সংগ্রহ দাঁড়ায় তিন উইকেটের বিনিময়ে ২৪৫ রান।

বল হাতে নিউজিল্যান্ডের পক্ষে ট্রেন্ট বোল্ট দুটি এবং মিচেল স্ট্যানার একটি ইউকেট তুলে নেন।
কিউইদের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচ সিরিজের দুই ম্যাচ হাতে রেখেই ৩-০ ব্যবধানে সিরিজ নিশ্চিত করলো সফরকারী ভারত। এর আগে সিরিজের প্রথম ম্যাচে নেপিয়ারে স্বাগতিকদের ৮ উইকেট এবং দ্বিতীয় ম্যাচে মাউন্ট মাউনগানুইতে তাদের ৯০ রানের বিশাল ব্যাবধানে হারায় টিম ইন্ডিয়া।

Tag :
আপলোডকারীর তথ্য

প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে চিকিৎসার চেক হস্তান্ত, সাবেক এম পি নুরুল আমিন রুহুল

দুই ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতে নিলো ভারত

আপডেট টাইম : ১০:৪৯:৪৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৮ জানুয়ারী ২০১৯

স্পোর্টস ডেস্ক :  তৃতীয় ওয়ানডেতে নিউজিল্যান্ডকে সাত উইকেটে হারিয়ে দুই ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতল ভারত। এই জয়ে পাঁচ ম্যাচ সিরিজে ৩-০-তে এগিয়ে গেছে সফরকারীরা। ভারতের ম্যাচ জয়ের নায়ক পেসার মোহাম্মদ শামি। ফলে ২০০৯ সালের পর আবারও নিউজিল্যান্ডের মাটিতে ওয়ানডে সিরিজ জিতলো সফরকারীরা।

অস্ট্রেলিয়া সফরের শুরু থেকেই দুর্দান্ত ফর্মে ছিল ভারতীয় দল। নিউজিল্যান্ডের মাটিতেও অপ্রতিরোধ্য। প্রথম দুই ম্যাচের মতো তৃতীয় ম্যাচেও কোনো রকম লড়াই করতে পারেনি স্বাগতিকরা।

টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় নিউজিল্যান্ড। এদিন ভারতীয় দলে দুটি পরিবর্তন করা হয়। বিতর্ক শেষে জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েই সরাসরি প্রথম একাদশে ঢুকে যান হার্দিক পাণ্ডিয়া। হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটের জন্য ধোনিকে বিশ্রাম দেয়া হয়, তার জায়গায় দলে আসেন দিনেশ কার্তিক।

প্রথমে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি কিউইদের। এদিনও ব্যর্থ হন দুই ওপেনার। গাপটিলদের ব্যর্থতার পর অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন এবং রস টেলর ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছিলেন। দলগত ৫৯ রানের মাথায় যুযবেন্দ্র চাহালের বলে দুর্দান্ত ক্যাচ নিয়ে তাকে সাজঘরে ফেরান হার্দিক।

২৪৩ রানের জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে ওপেনার রোহিত শর্মা ৭৭ বলে ৬২ রান ও শিখর ধাওয়ান ২৭ বলে ২৮ রানের ইনিংস খেলে সাজঘরে ফেরেন। পরে অধিনায়ক বিরাট কোহলি ৭৪ বলে ৬০ রানের ইনিংস খেলেন। কোহলি সাজঘরে ফিরলেও আম্বাতি রায়ডু ও দিনেশ কার্তিক যথাক্রমে ৪০ ও ৩৮ রানে অপরাজিত থেকে সাত ওভার হাতে রেখেই দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান। ইনিংস শেষে ভারতের সংগ্রহ দাঁড়ায় তিন উইকেটের বিনিময়ে ২৪৫ রান।

বল হাতে নিউজিল্যান্ডের পক্ষে ট্রেন্ট বোল্ট দুটি এবং মিচেল স্ট্যানার একটি ইউকেট তুলে নেন।
কিউইদের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচ সিরিজের দুই ম্যাচ হাতে রেখেই ৩-০ ব্যবধানে সিরিজ নিশ্চিত করলো সফরকারী ভারত। এর আগে সিরিজের প্রথম ম্যাচে নেপিয়ারে স্বাগতিকদের ৮ উইকেট এবং দ্বিতীয় ম্যাচে মাউন্ট মাউনগানুইতে তাদের ৯০ রানের বিশাল ব্যাবধানে হারায় টিম ইন্ডিয়া।