ঢাকা ০৩:১০ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
মৌলভীবাজার-২

স্বতন্ত্র নির্বাচনের ঘোষণা সলমানের, পদত্যাগ করবেন উপজেলা চেয়ারম্যান এর দায়িত্ব থেকে

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মৌলভীবাজার-২ কুলাউড়া আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে উপজেলা চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ একেএম সফি আহমদ সলমান। তিনি এ আসনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন। গতকাল সোমবার রাত ৯টায় পৌর শহরের বাদেমনসুর এলাকায় তাঁর নিজ বাসভবনে বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীর মধ্যে চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগের ওই ঘোষণা দেন সফি আহমদ সলমান। এরআগে গত রোববার তিনি জাতীয় সংসদ নির্বাচন কুলাউড়ার সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন সংগ্রহ করেন।

এর আগে সোমবার (২৭ নভেম্বর) স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব বরাবর সফি আহমদ সলমান পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন বলে কালের কণ্ঠকে নিশ্চিত করেছেন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন কুলাউড়ার সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাহমুদুর রহমান খোন্দকার। তিনি মঙ্গলবার দুপুরে দৈনিক আলোর জগত এই প্রতিবেদককে বলেন, পদত্যাগ পত্রে ব্যক্তিগত কারণ উল্লেখ করে সোমবার বিকেলে তাঁর মাধ্যমে স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব বরাবর সফি আহমদ সলমান ওই পদত্যাগপত্রটি জমা দেন।

নিজের প্রার্থীতা ঘোষণা করে মতবিনিময় সভায় কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন সফি আহমদ সলমান। এসময় উপস্থিত নেতাকর্মী ও অনুসারীরা তাঁকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার জন্য জোর দাবি জানান।

উপজেলা চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়ে উপস্থিত নেতাকর্মী ও অনুসারীদের উদ্দেশ্যে সফি আহমদ সলমান বলেন, আমার দীর্ঘদিনের লালিত স্বপ্ন ছিলো, এই অবহেলিত, নিগৃহিত, নির্যাতিত, অধিকার বঞ্চিত কুলাউড়ার মানুষের উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করা। কুলাউড়াকে দেশের অন্যতম শ্রেষ্ঠ একটি উন্নয়নের রোল মডেলের উপজেলা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করা। আমাদের নেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা গণভবনে নির্বাচনে যারা মনোনয়ন সংগ্রহ করেছিলেন সবার সম্মুখে তিনি বলেছেন, আমার হাতে ৩০০ জনের নাম দেয়ার ব্যবস্থা আছে, বাকিটুকু আপনারা যারা দলের নিবেদিত প্রাণ, যাদের তৃণমূলে গ্রহণযোগ্যতা আছে তারা নির্বাচিত হয়ে আসেন। আমি উন্মুক্ত করে দিলাম এবং প্রত্যেক এলাকায় যেনো আওয়ামীলীগের প্রার্থীর সাথে একজন প্রতিদ্বন্ধী থাকে। এখানে দলীয় কোনো প্রতিবন্ধকতা নেই। নেত্রী বলেছেন, যারা নির্বাচিত হয়ে আসবেন তারা আমার দলের সংসদ সদস্য হিসেবে মনোনীত হবেন। এই আশায় আশান্বিত হয়ে আল্লাহর ওপর ভরসা ও আপনাদের ওপর আস্থা রেখে আমি আসন্ন নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে অংশ নিচ্ছি। জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী।

মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য মুহিম খাঁন, জেলা কৃষকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাফর আহমদ গিলমান, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, যুবলীগ ও বিভিন্ন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ।

উল্লেখ্য, সফি আহমদ সলমান ২০১৮ সালের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীকে বিপুল ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। এর আগে তিনি উপজেলার কাদিপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৩ বারের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন।

কুলাউড়া উপজেলা নিয়ে গঠিত মৌলভীবাজারে-২ আসনে নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল।

আপলোডকারীর তথ্য

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ইন্টারন্যাশনাল রিলেশনস রিপোর্টার্স ফোরামের শ্রদ্ধা

মৌলভীবাজার-২

স্বতন্ত্র নির্বাচনের ঘোষণা সলমানের, পদত্যাগ করবেন উপজেলা চেয়ারম্যান এর দায়িত্ব থেকে

আপডেট টাইম : ০৬:৪৮:১১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ নভেম্বর ২০২৩

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মৌলভীবাজার-২ কুলাউড়া আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে উপজেলা চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ একেএম সফি আহমদ সলমান। তিনি এ আসনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন। গতকাল সোমবার রাত ৯টায় পৌর শহরের বাদেমনসুর এলাকায় তাঁর নিজ বাসভবনে বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীর মধ্যে চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগের ওই ঘোষণা দেন সফি আহমদ সলমান। এরআগে গত রোববার তিনি জাতীয় সংসদ নির্বাচন কুলাউড়ার সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন সংগ্রহ করেন।

এর আগে সোমবার (২৭ নভেম্বর) স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব বরাবর সফি আহমদ সলমান পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন বলে কালের কণ্ঠকে নিশ্চিত করেছেন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন কুলাউড়ার সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাহমুদুর রহমান খোন্দকার। তিনি মঙ্গলবার দুপুরে দৈনিক আলোর জগত এই প্রতিবেদককে বলেন, পদত্যাগ পত্রে ব্যক্তিগত কারণ উল্লেখ করে সোমবার বিকেলে তাঁর মাধ্যমে স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব বরাবর সফি আহমদ সলমান ওই পদত্যাগপত্রটি জমা দেন।

নিজের প্রার্থীতা ঘোষণা করে মতবিনিময় সভায় কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন সফি আহমদ সলমান। এসময় উপস্থিত নেতাকর্মী ও অনুসারীরা তাঁকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার জন্য জোর দাবি জানান।

উপজেলা চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়ে উপস্থিত নেতাকর্মী ও অনুসারীদের উদ্দেশ্যে সফি আহমদ সলমান বলেন, আমার দীর্ঘদিনের লালিত স্বপ্ন ছিলো, এই অবহেলিত, নিগৃহিত, নির্যাতিত, অধিকার বঞ্চিত কুলাউড়ার মানুষের উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করা। কুলাউড়াকে দেশের অন্যতম শ্রেষ্ঠ একটি উন্নয়নের রোল মডেলের উপজেলা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করা। আমাদের নেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা গণভবনে নির্বাচনে যারা মনোনয়ন সংগ্রহ করেছিলেন সবার সম্মুখে তিনি বলেছেন, আমার হাতে ৩০০ জনের নাম দেয়ার ব্যবস্থা আছে, বাকিটুকু আপনারা যারা দলের নিবেদিত প্রাণ, যাদের তৃণমূলে গ্রহণযোগ্যতা আছে তারা নির্বাচিত হয়ে আসেন। আমি উন্মুক্ত করে দিলাম এবং প্রত্যেক এলাকায় যেনো আওয়ামীলীগের প্রার্থীর সাথে একজন প্রতিদ্বন্ধী থাকে। এখানে দলীয় কোনো প্রতিবন্ধকতা নেই। নেত্রী বলেছেন, যারা নির্বাচিত হয়ে আসবেন তারা আমার দলের সংসদ সদস্য হিসেবে মনোনীত হবেন। এই আশায় আশান্বিত হয়ে আল্লাহর ওপর ভরসা ও আপনাদের ওপর আস্থা রেখে আমি আসন্ন নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে অংশ নিচ্ছি। জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী।

মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য মুহিম খাঁন, জেলা কৃষকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাফর আহমদ গিলমান, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, যুবলীগ ও বিভিন্ন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ।

উল্লেখ্য, সফি আহমদ সলমান ২০১৮ সালের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীকে বিপুল ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। এর আগে তিনি উপজেলার কাদিপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৩ বারের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন।

কুলাউড়া উপজেলা নিয়ে গঠিত মৌলভীবাজারে-২ আসনে নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল।