ঢাকা ০২:৪৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম :
Logo অবৈধভাবে চাঁদা উত্তোলন করাকালে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকা হতে ০৪ জন পরিবহন চাঁদাবাজকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০। Logo ফরিদপুর জেলার মধুখালিতে “শ্যালিকার সঙ্গে পরকীয়ার জেরে দুলাভাইকে হত্যা” শীর্ষক চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার পলাতক আসামি শরিফুল শেখ ও তথি বেগম’কে ফরিদপুরের কোতোয়ালি এলাকা হতে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০। Logo মুন্সীগঞ্জ জেলার টংগীবাড়ী এলাকা হতে ২৩.৫ কেজি গাঁজাসহ ০১ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০ Logo গ্রাম পুলিশ সদস্যকে ধর্ষণের অভিযোগে এক ইউপি চেয়ারম্যান ও সহযোগীর বিরুদ্ধে মামলা Logo আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ইন্টারন্যাশনাল রিলেশনস রিপোর্টার্স ফোরামের শ্রদ্ধা

বিত্তবান শুধু নয়, নিম্নবিত্তদের জন্যও কাজ করে আ.লীগ : প্রধানমন্ত্রী

ফাইল ছবি

আলোর জগত ডেস্ক :  বাংলাদেশের জনগণের ভাগ্য পরিবর্তন করাই লক্ষ্য, নিজেদের ভাগ্য পরিবর্তন করতে আসি নাই বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ শুক্রবার বিকেলে গুলশান ইয়ুথক্লাব মাঠে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় তিনি এ মন্তব্য করেন। সভায় সভাপতিত্ব করেন ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম রহমত উল্লাহ।

শেখ হাসিনা বলেন, আমি জানি ঢাকায় বস্তিবাসী রয়েছেন। এই বস্তিবাসীরা মানবেতর জীবনযাপন করেন। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি আজকে যে অবস্থায় তারা রয়েছেন সেই অবস্থায় তারা থাকবে না। তারা যাতে ফ্ল্যাট ভাড়া করে থাকতে পারে। বহুতল ভবন করে, ফ্ল্যাট নির্মাণ করে যারা স্বল্পহারে মানুষ তাদের জন্য ফ্ল্যাট ভাড়া করার ব্যবস্থা করব। অন্তত সেই ফ্লাটগুলো দৈনিক হারে, মাসিক হারে যে যেভাবে চাইবে ভাড়া দিতে পারবে। সেই প্রকল্প হাতে নিয়েছি।

আওয়ামী লীগের সভাপতি বলেন, যারা বিত্তশালী শুধু তাদের মুখের দিকে তাকিয়ে নয়, যারা নিম্নবিত্তশালী তাদের দিকে তাকিয়ে রাজনীতি করে আওয়ামী লীগ। তাদের বিভিন্ন সুযোগ সুবিধার জন্য বিভিন্ন প্রকল্প আমরা হাতে নিয়েছি। আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে দেশের মানুষের জীবন মান উন্নয়ন করা। একটা সময় ছিল যখন একজন দিনমজুর দুই-তিন কেজি চাল কিনতে পারতো, এখন তারা ৮-১০ কেজি চাল কিনতে পারে, মাছ কিনতে পারে; সবজি কিনতে পারে। আজকের ডিজিটাল বাংলাদেশ আমরা করে দিয়েছি। এই উন্নয়নের ধারা আমরা অব্যাহত রাখতে চাই। জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসের কোন স্থান বাংলাদেশ নেই।আপনাদের মনে আছে এই গুলশানে হলি আর্টিজানে যখন জঙ্গি আক্রমণ হলো, তখন কী অবস্থা হয়েছিলো। আমরা মাত্র ৮-৯ নয় ঘণ্টার মধ্যে সেই জঙ্গিদেরকে দমন করেছিলাম।

নৌকার পক্ষে ভোট চেয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা বলেন, যারা মানুষকে মানুষ মনে করে না, তারা কিভাবে আবার ধানের শীষে ভোট চায়? এটা আমরা বুঝি না! ধানের শীষে ভোট মানেই দুর্নীতি এতিমের টাকা আত্মসাৎ, মানি লন্ডারিং আর নৌকা মার্কা মানে স্বাধীনতা, মানুষের উন্নতি। দেশের মানুষ নৌকায় ভোট দিয়েছিলো বলেই তার সুফল এখন দেশবাসী পাচ্ছে। আওয়ামী লীগ সরকার পরিচালনা করে মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য, নিজের ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য নয়; এতিমের টাকা মেরে দেয়ার জন্য নয়। এতিমের অর্থ আত্মসাৎ করলে শাস্তি তো পেতেই হবে। এটা কোরআনেই লেখা আছে।

শেখ হাসিনা বলেন, আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে আমরা আমাদের সামনে যে উপস্থিত হয়েছি-আমরা চাই যে, নৌকা মার্কা এই নৌকা মাকায় ভোট দিয়ে বাংলাদেশের জনগণ বাংলা ভাষা মাতৃভাষায় কথা বলতে পারছে। এই নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে বাংলাদেশ স্বাধীনতা অর্জন করেছে। এই নৌকা মার্কায় ভোট দিয়েছেন বলে আজকে সকলের জীবনমান উন্নত হচ্ছে।

Tag :
আপলোডকারীর তথ্য

অবৈধভাবে চাঁদা উত্তোলন করাকালে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকা হতে ০৪ জন পরিবহন চাঁদাবাজকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০।

বিত্তবান শুধু নয়, নিম্নবিত্তদের জন্যও কাজ করে আ.লীগ : প্রধানমন্ত্রী

আপডেট টাইম : ০৯:২৩:২৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২১ ডিসেম্বর ২০১৮

আলোর জগত ডেস্ক :  বাংলাদেশের জনগণের ভাগ্য পরিবর্তন করাই লক্ষ্য, নিজেদের ভাগ্য পরিবর্তন করতে আসি নাই বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ শুক্রবার বিকেলে গুলশান ইয়ুথক্লাব মাঠে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় তিনি এ মন্তব্য করেন। সভায় সভাপতিত্ব করেন ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম রহমত উল্লাহ।

শেখ হাসিনা বলেন, আমি জানি ঢাকায় বস্তিবাসী রয়েছেন। এই বস্তিবাসীরা মানবেতর জীবনযাপন করেন। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি আজকে যে অবস্থায় তারা রয়েছেন সেই অবস্থায় তারা থাকবে না। তারা যাতে ফ্ল্যাট ভাড়া করে থাকতে পারে। বহুতল ভবন করে, ফ্ল্যাট নির্মাণ করে যারা স্বল্পহারে মানুষ তাদের জন্য ফ্ল্যাট ভাড়া করার ব্যবস্থা করব। অন্তত সেই ফ্লাটগুলো দৈনিক হারে, মাসিক হারে যে যেভাবে চাইবে ভাড়া দিতে পারবে। সেই প্রকল্প হাতে নিয়েছি।

আওয়ামী লীগের সভাপতি বলেন, যারা বিত্তশালী শুধু তাদের মুখের দিকে তাকিয়ে নয়, যারা নিম্নবিত্তশালী তাদের দিকে তাকিয়ে রাজনীতি করে আওয়ামী লীগ। তাদের বিভিন্ন সুযোগ সুবিধার জন্য বিভিন্ন প্রকল্প আমরা হাতে নিয়েছি। আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে দেশের মানুষের জীবন মান উন্নয়ন করা। একটা সময় ছিল যখন একজন দিনমজুর দুই-তিন কেজি চাল কিনতে পারতো, এখন তারা ৮-১০ কেজি চাল কিনতে পারে, মাছ কিনতে পারে; সবজি কিনতে পারে। আজকের ডিজিটাল বাংলাদেশ আমরা করে দিয়েছি। এই উন্নয়নের ধারা আমরা অব্যাহত রাখতে চাই। জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসের কোন স্থান বাংলাদেশ নেই।আপনাদের মনে আছে এই গুলশানে হলি আর্টিজানে যখন জঙ্গি আক্রমণ হলো, তখন কী অবস্থা হয়েছিলো। আমরা মাত্র ৮-৯ নয় ঘণ্টার মধ্যে সেই জঙ্গিদেরকে দমন করেছিলাম।

নৌকার পক্ষে ভোট চেয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা বলেন, যারা মানুষকে মানুষ মনে করে না, তারা কিভাবে আবার ধানের শীষে ভোট চায়? এটা আমরা বুঝি না! ধানের শীষে ভোট মানেই দুর্নীতি এতিমের টাকা আত্মসাৎ, মানি লন্ডারিং আর নৌকা মার্কা মানে স্বাধীনতা, মানুষের উন্নতি। দেশের মানুষ নৌকায় ভোট দিয়েছিলো বলেই তার সুফল এখন দেশবাসী পাচ্ছে। আওয়ামী লীগ সরকার পরিচালনা করে মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য, নিজের ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য নয়; এতিমের টাকা মেরে দেয়ার জন্য নয়। এতিমের অর্থ আত্মসাৎ করলে শাস্তি তো পেতেই হবে। এটা কোরআনেই লেখা আছে।

শেখ হাসিনা বলেন, আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে আমরা আমাদের সামনে যে উপস্থিত হয়েছি-আমরা চাই যে, নৌকা মার্কা এই নৌকা মাকায় ভোট দিয়ে বাংলাদেশের জনগণ বাংলা ভাষা মাতৃভাষায় কথা বলতে পারছে। এই নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে বাংলাদেশ স্বাধীনতা অর্জন করেছে। এই নৌকা মার্কায় ভোট দিয়েছেন বলে আজকে সকলের জীবনমান উন্নত হচ্ছে।