ঢাকা ১০:২৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে ড. মো. সাজ্জাদের বক্তব্য অনলাইন ডেস্ক:

  • অনলাইন ডেস্ক:
  • আপডেট টাইম : ০৫:৩২:০০ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩০ অক্টোবর ২০২৩
  • ৩৯ বার পড়া হয়েছে

সোমবার ৩০ অক্টোবর ইউজিসির সভাকক্ষে আয়োজিত এক সেমিনারে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) সদস্য প্রফেসর ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন, একটি সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে বাংলাদেশকে গড়ে তুলতে দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে গবেষণা ও উদ্ভাবনের কেন্দ্রবিন্দু হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে স্মার্ট দেশে রূপান্তর করতে গবেষণা ও উদ্ভাবনের কোনো বিকল্প নেই। বিশ্বের উন্নত দেশগুলোতে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো প্রায়োগিক গবেষণার মাধ্যমে বিভিন্ন শিল্প সমস্যার সমাধান দিয়ে থাকে। বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো এ ক্ষেত্রে অনেক পিছিয়ে রয়েছে।

শিক্ষা বিভাগীয় কর্মচারী (শিক্ষক) কর্তৃক অর্জিত পিএইচডি অভিসন্দর্ভ ও শিক্ষাদান সংশ্লিষ্ট বিষয়ের সামঞ্জস্য নিরূপণ’ শীর্ষক একাডেমিক সেমিনারের আয়োজন করে ইউজিসির গবেষণা সহায়তা ও প্রকাশনা বিভাগ। এই বিভাগের পরিচালক ড. মো. ফখরুল ইসলামের সভাপতিত্বে সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউজিসি সদস্য প্রফেসর ড. মো. আবু তাহের। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন গবেষণা সহায়তা ও প্রকাশনা বিভাগের অতিরিক্ত পরিচালক মো. শাহীন সিরাজ।

প্রফেসর ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে শিল্প প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যৌথ সহযোগিতামূলক গবেষণা গ্রকল্প গ্রহণ ও সেগুলো বাস্তবায়নে যথাযথ উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। প্রযুক্তির আমদানি নির্ভরতা কমাতে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে উদ্ভাবনী পরিবেশ তৈরি করতে হবে। শিক্ষা কারিকুলামে প্রয়োজনীয় পরিবর্তন এনে শিল্প প্রতিষ্ঠানের চাহিদা অনুসারে দক্ষ গ্রাজুয়েট তৈরির উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। অন্যথায়, উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করেও শিক্ষার্থীরা উপযুক্ত কর্মসংস্থানের সুযোগ থেকে বঞ্চিত হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ইউজিসি সদস্য প্রফেসর ড. মো. আবু তাহের বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে গবেষণা উদ্ভাবনের সংস্কৃতি গড়ে তুলতে ইউজিসি প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। অর্থের অভাবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে গবেষণাকর্ম যেন ব্যাহত না হয় সেজন্য বিগত বছরগুলোতে গবেষণাখাতে বাজেট উল্লেখযোগ্য হারে বৃদ্ধি করা হয়েছে। চলতি অর্থবছরে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে গবেষণার জন্য ১৭৪ কোটি টাকা বাজেট বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। বিগত অর্থবছরের তুলনায় বাজেটে এ খাতে বরাদ্দ ২৪ কোটি টাকা বৃদ্ধি করা হয়েছে। আগামী বছরগুলোতেও বাজট বৃদ্ধির এ ধারা অব্যাহত থাকবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সেমিনারে উপস্থিত ইউজিসি ও দেশের ৯টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৫ জন শিক্ষাবিদ পিএইচডি ডিগ্রি প্রদানের ক্ষেত্রে একটি সমন্বিত নীতিমালা প্রণয়নের উদ্যোগ নিতে ইউজিসি’র প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

আপলোডকারীর তথ্য

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ইন্টারন্যাশনাল রিলেশনস রিপোর্টার্স ফোরামের শ্রদ্ধা

বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে ড. মো. সাজ্জাদের বক্তব্য অনলাইন ডেস্ক:

আপডেট টাইম : ০৫:৩২:০০ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩০ অক্টোবর ২০২৩

সোমবার ৩০ অক্টোবর ইউজিসির সভাকক্ষে আয়োজিত এক সেমিনারে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) সদস্য প্রফেসর ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন, একটি সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে বাংলাদেশকে গড়ে তুলতে দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে গবেষণা ও উদ্ভাবনের কেন্দ্রবিন্দু হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে স্মার্ট দেশে রূপান্তর করতে গবেষণা ও উদ্ভাবনের কোনো বিকল্প নেই। বিশ্বের উন্নত দেশগুলোতে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো প্রায়োগিক গবেষণার মাধ্যমে বিভিন্ন শিল্প সমস্যার সমাধান দিয়ে থাকে। বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো এ ক্ষেত্রে অনেক পিছিয়ে রয়েছে।

শিক্ষা বিভাগীয় কর্মচারী (শিক্ষক) কর্তৃক অর্জিত পিএইচডি অভিসন্দর্ভ ও শিক্ষাদান সংশ্লিষ্ট বিষয়ের সামঞ্জস্য নিরূপণ’ শীর্ষক একাডেমিক সেমিনারের আয়োজন করে ইউজিসির গবেষণা সহায়তা ও প্রকাশনা বিভাগ। এই বিভাগের পরিচালক ড. মো. ফখরুল ইসলামের সভাপতিত্বে সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউজিসি সদস্য প্রফেসর ড. মো. আবু তাহের। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন গবেষণা সহায়তা ও প্রকাশনা বিভাগের অতিরিক্ত পরিচালক মো. শাহীন সিরাজ।

প্রফেসর ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে শিল্প প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যৌথ সহযোগিতামূলক গবেষণা গ্রকল্প গ্রহণ ও সেগুলো বাস্তবায়নে যথাযথ উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। প্রযুক্তির আমদানি নির্ভরতা কমাতে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে উদ্ভাবনী পরিবেশ তৈরি করতে হবে। শিক্ষা কারিকুলামে প্রয়োজনীয় পরিবর্তন এনে শিল্প প্রতিষ্ঠানের চাহিদা অনুসারে দক্ষ গ্রাজুয়েট তৈরির উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। অন্যথায়, উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করেও শিক্ষার্থীরা উপযুক্ত কর্মসংস্থানের সুযোগ থেকে বঞ্চিত হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ইউজিসি সদস্য প্রফেসর ড. মো. আবু তাহের বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে গবেষণা উদ্ভাবনের সংস্কৃতি গড়ে তুলতে ইউজিসি প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। অর্থের অভাবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে গবেষণাকর্ম যেন ব্যাহত না হয় সেজন্য বিগত বছরগুলোতে গবেষণাখাতে বাজেট উল্লেখযোগ্য হারে বৃদ্ধি করা হয়েছে। চলতি অর্থবছরে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে গবেষণার জন্য ১৭৪ কোটি টাকা বাজেট বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। বিগত অর্থবছরের তুলনায় বাজেটে এ খাতে বরাদ্দ ২৪ কোটি টাকা বৃদ্ধি করা হয়েছে। আগামী বছরগুলোতেও বাজট বৃদ্ধির এ ধারা অব্যাহত থাকবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সেমিনারে উপস্থিত ইউজিসি ও দেশের ৯টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৫ জন শিক্ষাবিদ পিএইচডি ডিগ্রি প্রদানের ক্ষেত্রে একটি সমন্বিত নীতিমালা প্রণয়নের উদ্যোগ নিতে ইউজিসি’র প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।