ঢাকা ০৬:২৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম :

ভোটের ৭ দিন আগে সেনা মোতায়েন : ইসি সচিব

ফাইল ছবি

অালোর জগত ডেস্ক :   আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূর্বকালীন সময়ে, ২ থেকে ৩ দিন বা ৭ থেকে ১০ দিন আগে সেনাবাহিনী মোতায়েন থাকবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। আজ বৃহস্পতিবার সকালে আগারগাঁওয়ের নির্বাচন কমিশন ভবনে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাদের ব্রিফ করার সময় ইসি সচিব এই কথা বলেন।

তিনি বলেন, এ ছাড়া বিজিবি মোতায়েন করা হবে। সুতরাং এখন থেকে তাদের থাকার ব্যবস্থা করা এবং কোথায় প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে, সেটা ঠিক করতে হবে।

এর আগে, বিভিন্ন সময় অধিকাংশ রাজনৈতিক দলগুলো নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েনের দাবি জানিয়ে আসছিল। এতদিন পর্যন্ত এ বিষয়ে কিছু না বললেও এই প্রথম আনুষ্ঠানিকভাবে গণমাধ্যমকে জানালো নির্বাচন কমিশন।

প্রসঙ্গত, ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, আগামী ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এ লক্ষ্যে আগামী ২৮ নভেম্বর পর্যন্ত মনোনয়ন দাখিল ও ২ ডিসেম্বর যাচাই-বাছাইয়ের পর প্রার্থিতা প্রত্যাহার করা যাবে ৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত। এছাড়া ১০ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পর আনুষ্ঠানিক প্রচার শুরু করতে পারবেন প্রার্থীরা।

Tag :
আপলোডকারীর তথ্য

প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে চিকিৎসার চেক হস্তান্ত, সাবেক এম পি নুরুল আমিন রুহুল

ভোটের ৭ দিন আগে সেনা মোতায়েন : ইসি সচিব

আপডেট টাইম : ০৭:০৪:১৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮

অালোর জগত ডেস্ক :   আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূর্বকালীন সময়ে, ২ থেকে ৩ দিন বা ৭ থেকে ১০ দিন আগে সেনাবাহিনী মোতায়েন থাকবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। আজ বৃহস্পতিবার সকালে আগারগাঁওয়ের নির্বাচন কমিশন ভবনে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাদের ব্রিফ করার সময় ইসি সচিব এই কথা বলেন।

তিনি বলেন, এ ছাড়া বিজিবি মোতায়েন করা হবে। সুতরাং এখন থেকে তাদের থাকার ব্যবস্থা করা এবং কোথায় প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে, সেটা ঠিক করতে হবে।

এর আগে, বিভিন্ন সময় অধিকাংশ রাজনৈতিক দলগুলো নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েনের দাবি জানিয়ে আসছিল। এতদিন পর্যন্ত এ বিষয়ে কিছু না বললেও এই প্রথম আনুষ্ঠানিকভাবে গণমাধ্যমকে জানালো নির্বাচন কমিশন।

প্রসঙ্গত, ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, আগামী ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এ লক্ষ্যে আগামী ২৮ নভেম্বর পর্যন্ত মনোনয়ন দাখিল ও ২ ডিসেম্বর যাচাই-বাছাইয়ের পর প্রার্থিতা প্রত্যাহার করা যাবে ৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত। এছাড়া ১০ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পর আনুষ্ঠানিক প্রচার শুরু করতে পারবেন প্রার্থীরা।