ঢাকা ০৯:০৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম :

শপথ নিচ্ছে ৩ দশকের সবচেয়ে ছোট মন্ত্রিসভা

  • অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : ০২:১০:৩৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ জানুয়ারী ২০২৪
  • ৩৪ বার পড়া হয়েছে

গেল তিন দশকেরও বেশি সময়ের মধ্যে এবারই সবচেয়ে ছোট মন্ত্রিসভা ঘোষণা করা হয়েছে। বুধবার (১০ জানুয়ারি) ২৫ মন্ত্রী ও ১১ প্রতিমন্ত্রীর নাম প্রকাশ করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, ১৯৯১ সালের পর থেকে এটিই সবচেয়ে ছোট মন্ত্রিসভা।

১৯৯১ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত মন্ত্রিসভা নিয়ে পর্যালোচনা করে দেখা যায়, ওই সময়ে যে ছয়টি রাজনৈতিক সরকার দেশ পরিচালনা করে, তাদের মন্ত্রিসভায় ৪৫ থেকে ৬২ জন পর্যন্ত সদস্য ছিলেন। সর্বশেষ মন্ত্রিসভায় এই সংখ্যাটি ছিল ৪৫ জন। আর ২০০৯ থেকে ২০১৪ সরকারের মন্ত্রিসভার আকার ছিল সবচেয়ে বড়, যা ৬২ জনের।

বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারি) সন্ধ্যা সাতটায় বঙ্গভবনে ৩৭ সদস্যের মন্ত্রিসভা শপথ নিতে যাচ্ছে। সংবিধানের ৫৫ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, ‘প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশের একটি মন্ত্রিসভা থাকিবে এবং প্রধানমন্ত্রী সময়ে সময়ে যেরূপ স্থির করিবেন, সেইরূপ অন্যান্য মন্ত্রী লইয়া এই মন্ত্রিসভা গঠিত হইবে।’

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, ১৯৯১-৯৬ সরকারের মন্ত্রিপরিষদের আকার ছিল ৫০ জন। তখন মন্ত্রী ছিলেন ২৫, প্রতিমন্ত্রী ছিলেন ২২। এছাড়াও আরও তিন জন উপমন্ত্রী ছিলেন। এরপর ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত সরকারের মন্ত্রিসভার আকার ছিল ৪৯ জন। মন্ত্রী ছিলেন ২২, প্রতিমন্ত্রী ছিলেন ২৪ এবং উপমন্ত্রী ছিলেন ৩ জন।

২০০১-২০০৬ সরকারের মন্ত্রিপরিষদের আকার ছিল ৬০ জন। এই মন্ত্রিসভায় মন্ত্রী ছিলেন ২৮, প্রতিমন্ত্রী ২৮ এবং উপমন্ত্রী ৪ জন। ২০০৯-১৪ সরকারের মন্ত্রিপরিষদের আকার ছিল ৬২ জন।

এই মন্ত্রিপরিষদে মন্ত্রী ছিলেন ৩৮ ও প্রতিমন্ত্রী ২৪ জন। ২০১৪-১৯ সরকারের মন্ত্রিপরিষদের আকার ছিল ৫৯ জন। এই সরকারের মন্ত্রী ছিলেন ৩৬, প্রতিমন্ত্রী ২১ এবং উপমন্ত্রী ২ জন। ২০১৯-২৪ সরকারের মন্ত্রিপরিষদের আকার ৪৫ জনের। এই সরকারের মন্ত্রীর সংখ্যা ২৪, প্রতিমন্ত্রী ১৮ এবং উপমন্ত্রী ৩ জন।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে চিকিৎসার চেক হস্তান্ত, সাবেক এম পি নুরুল আমিন রুহুল

শপথ নিচ্ছে ৩ দশকের সবচেয়ে ছোট মন্ত্রিসভা

আপডেট টাইম : ০২:১০:৩৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ জানুয়ারী ২০২৪

গেল তিন দশকেরও বেশি সময়ের মধ্যে এবারই সবচেয়ে ছোট মন্ত্রিসভা ঘোষণা করা হয়েছে। বুধবার (১০ জানুয়ারি) ২৫ মন্ত্রী ও ১১ প্রতিমন্ত্রীর নাম প্রকাশ করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, ১৯৯১ সালের পর থেকে এটিই সবচেয়ে ছোট মন্ত্রিসভা।

১৯৯১ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত মন্ত্রিসভা নিয়ে পর্যালোচনা করে দেখা যায়, ওই সময়ে যে ছয়টি রাজনৈতিক সরকার দেশ পরিচালনা করে, তাদের মন্ত্রিসভায় ৪৫ থেকে ৬২ জন পর্যন্ত সদস্য ছিলেন। সর্বশেষ মন্ত্রিসভায় এই সংখ্যাটি ছিল ৪৫ জন। আর ২০০৯ থেকে ২০১৪ সরকারের মন্ত্রিসভার আকার ছিল সবচেয়ে বড়, যা ৬২ জনের।

বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারি) সন্ধ্যা সাতটায় বঙ্গভবনে ৩৭ সদস্যের মন্ত্রিসভা শপথ নিতে যাচ্ছে। সংবিধানের ৫৫ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, ‘প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশের একটি মন্ত্রিসভা থাকিবে এবং প্রধানমন্ত্রী সময়ে সময়ে যেরূপ স্থির করিবেন, সেইরূপ অন্যান্য মন্ত্রী লইয়া এই মন্ত্রিসভা গঠিত হইবে।’

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, ১৯৯১-৯৬ সরকারের মন্ত্রিপরিষদের আকার ছিল ৫০ জন। তখন মন্ত্রী ছিলেন ২৫, প্রতিমন্ত্রী ছিলেন ২২। এছাড়াও আরও তিন জন উপমন্ত্রী ছিলেন। এরপর ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত সরকারের মন্ত্রিসভার আকার ছিল ৪৯ জন। মন্ত্রী ছিলেন ২২, প্রতিমন্ত্রী ছিলেন ২৪ এবং উপমন্ত্রী ছিলেন ৩ জন।

২০০১-২০০৬ সরকারের মন্ত্রিপরিষদের আকার ছিল ৬০ জন। এই মন্ত্রিসভায় মন্ত্রী ছিলেন ২৮, প্রতিমন্ত্রী ২৮ এবং উপমন্ত্রী ৪ জন। ২০০৯-১৪ সরকারের মন্ত্রিপরিষদের আকার ছিল ৬২ জন।

এই মন্ত্রিপরিষদে মন্ত্রী ছিলেন ৩৮ ও প্রতিমন্ত্রী ২৪ জন। ২০১৪-১৯ সরকারের মন্ত্রিপরিষদের আকার ছিল ৫৯ জন। এই সরকারের মন্ত্রী ছিলেন ৩৬, প্রতিমন্ত্রী ২১ এবং উপমন্ত্রী ২ জন। ২০১৯-২৪ সরকারের মন্ত্রিপরিষদের আকার ৪৫ জনের। এই সরকারের মন্ত্রীর সংখ্যা ২৪, প্রতিমন্ত্রী ১৮ এবং উপমন্ত্রী ৩ জন।