ঢাকা ০৫:৪৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম :

দেশে ফিরলেন লিবিয়ায় আটক ১৪৩ বাংলাদেশী

দেশে ফিরেছেন লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলির ডিটেনশন সেন্টারে আটক থাকা ১৪৩ জন বাংলাদেশী। অবৈধ অভিবাসনের দায়ে তারা আটক ছিলেন।

মঙ্গলবার (২৮ নভেম্বর) সকালে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম), পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও লিবিয়াতে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের সহযোগিতায় তারা দেশে এসে পৌঁছান।

আজ সকালে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে আইওএম জানিয়েছে, দেশে ফেরার পর প্রত্যেক বাংলাদেশিকে বাড়ি ফেরার খরচ হিসেবে ৫ হাজার ৮৯৬ টাকা করে দেওয়া হয়েছে। নিজ এলাকায় ফিরে প্রতিবেশী ও স্বজনদের কাছে লিবিয়ায় আটক থাকার ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরতে তাদের উদ্বুদ্ধ করেন কর্মকর্তারা।

এর আগে সোমবার (২৭ নভেম্বর) লিবিয়ায় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল আবুল হাসনাত মুহাম্মদ খায়রুল বাশার লিবিয়ার অভিবাসন অধিদপ্তরে বাংলাদেশে ফেরত আসার অপেক্ষায় থাকা ব্যক্তিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন এবং তাদের বিদায় জানান।

এ সময় আবুল হাসনাত অবৈধ অভিবাসনের নানা ঝুঁকির কথা তাদের সামনে তুলে ধরেন। সেখানে আবুল হাসনাত জানান, সম্প্রতি বাংলাদেশ ও লিবিয়ার মধ্যে জনশক্তি রপ্তানিতে পারস্পরিক সহযোগিতার বিষয়ে একটি সমঝোতা হয়েছে। এর মাধ্যমে ভবিষ্যতে লিবিয়ায় বৈধভাবে আসা কর্মীদের অধিকার সুরক্ষিত হবে।

ফেরত আসা ১৪৩ জন ছাড়াও দেশে আসার অপেক্ষায় আছেন আরও ৩২০ বাংলাদেশি। তারা ত্রিপোলি ও বেনগাজীর ডিটেনশন সেন্টারে আটক আছেন। বুধবার (২৯ নভেম্বর) ও আগামী ৫ ডিসেম্বর তাদের দেশে ফেরত পাঠানো হবে। আইওএম জানায়, এ পর্যায়ে সর্বমোট ৫১৬ জন বাংলাদেশিকে দেশে ফিরবে।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে চিকিৎসার চেক হস্তান্ত, সাবেক এম পি নুরুল আমিন রুহুল

দেশে ফিরলেন লিবিয়ায় আটক ১৪৩ বাংলাদেশী

আপডেট টাইম : ০৫:৩৭:১৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ নভেম্বর ২০২৩

দেশে ফিরেছেন লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলির ডিটেনশন সেন্টারে আটক থাকা ১৪৩ জন বাংলাদেশী। অবৈধ অভিবাসনের দায়ে তারা আটক ছিলেন।

মঙ্গলবার (২৮ নভেম্বর) সকালে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম), পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও লিবিয়াতে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের সহযোগিতায় তারা দেশে এসে পৌঁছান।

আজ সকালে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে আইওএম জানিয়েছে, দেশে ফেরার পর প্রত্যেক বাংলাদেশিকে বাড়ি ফেরার খরচ হিসেবে ৫ হাজার ৮৯৬ টাকা করে দেওয়া হয়েছে। নিজ এলাকায় ফিরে প্রতিবেশী ও স্বজনদের কাছে লিবিয়ায় আটক থাকার ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরতে তাদের উদ্বুদ্ধ করেন কর্মকর্তারা।

এর আগে সোমবার (২৭ নভেম্বর) লিবিয়ায় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল আবুল হাসনাত মুহাম্মদ খায়রুল বাশার লিবিয়ার অভিবাসন অধিদপ্তরে বাংলাদেশে ফেরত আসার অপেক্ষায় থাকা ব্যক্তিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন এবং তাদের বিদায় জানান।

এ সময় আবুল হাসনাত অবৈধ অভিবাসনের নানা ঝুঁকির কথা তাদের সামনে তুলে ধরেন। সেখানে আবুল হাসনাত জানান, সম্প্রতি বাংলাদেশ ও লিবিয়ার মধ্যে জনশক্তি রপ্তানিতে পারস্পরিক সহযোগিতার বিষয়ে একটি সমঝোতা হয়েছে। এর মাধ্যমে ভবিষ্যতে লিবিয়ায় বৈধভাবে আসা কর্মীদের অধিকার সুরক্ষিত হবে।

ফেরত আসা ১৪৩ জন ছাড়াও দেশে আসার অপেক্ষায় আছেন আরও ৩২০ বাংলাদেশি। তারা ত্রিপোলি ও বেনগাজীর ডিটেনশন সেন্টারে আটক আছেন। বুধবার (২৯ নভেম্বর) ও আগামী ৫ ডিসেম্বর তাদের দেশে ফেরত পাঠানো হবে। আইওএম জানায়, এ পর্যায়ে সর্বমোট ৫১৬ জন বাংলাদেশিকে দেশে ফিরবে।