০৮:০৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কে সি সি  তে অবাধে চলছে ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা, ভ্যান, ইজিবাইক

খুলনা সিটি কর্পোরেশনে অবৈধভাবে চলছে ইজিবাইক ভ্যান ও অটোরিকশা।  খুলনা সিটি কর্পোরেশন কর্তৃক নিবন্ধিত প্রায় ১১ হাজারের কাছাকাছি নিবন্ধন থাকলে ও খুলনা সিটিতে প্রায় ২০ হাজারের মতো ব্যাটারি চালিত চালিত ইজিবাই চলাচল করে। একটি নিবন্ধন নাম্বার দিয়ে দুটি বা তিনটি বেশি ব্যাটারি চালিত ইজিবাই রাস্তায় চলাচল করতে দেখা যায়।

এছাড়া পর্যাপ্ত পরিমাণে রয়েছে ইঞ্জিন চালিত রিক্সা,ভ্যান।যার প্রতিটি রিক্সা ও ভ্যান সিটি কর্পোরেশনে নিবন্ধন বর্হিভূত।প্রতিমিনিটে ৩০টির ও অধিক ইঞ্জিন চালিত ভ্যান রিক্সা এবং ইজিবাইক রাস্তায় চলাচল করতে দেখা যায়। যার ফলে রাস্তাঘাটে সৃষ্টি হয় পর্যাপ্ত পরিমাণে যানজট। মাঝেমধ্যে পুলিশ প্রশাসনের অভিযান চালু থাকলে তখন সিটিতে এ সকল যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক থাকে। এছাড়া এ সকল যানবাহনের ড্রাইভার দের কোন ড্রাইভিং লাইসেন্স। তাহারা যত্রতত্র গাড়ি দাঁড় করায় এবং যাত্রী ওঠানো নামানো ব্যবস্থা করায়।

এছাড়া এ সকল গাড়িগুলো উচ্চগতি সম্পন্ন হওয়ার কারণে প্রায় ঘটে দুর্ঘটনা।  এ সকল তিন চাকার পরিবহনগুলো চলাচল করে হাইওয়ে রোডে।এ সকল যানবাহন সমূহের রয়েছে একটি অনিবন্ধিত সমিতি যাতে সকল ড্রাইভার দের নিকট থেকে চাঁদা তুলে এ সকল টাকাগুলোকে বিভিন্ন মহলকে বিনিময়ের মাধ্যমে যানবাহন গুলি হরহামেশে চলাফেরা করছে। এ সকল যানবাহন চালকের নাই কোন কারিগরি শিক্ষা। এ সকল যানবাহনের চালকেরা যাত্রী উঠানোর জন্য পাল্লা দিয়ে গাড়ি চালায় তারা বিভিন্ন সময় মুখোমুখি সংঘর্ষে লিপ্ত হয়।

 

এ ব্যাপারে কথা বলতে গেলে খুলনা ট্রাফিক সার্জেন্ট সার্জন পীযুষ সাহেব জানায় খুলনাতে অগণিত পরিমাণে ব্যাটারি চালিত ইজিবাইক রিক্সা ও ভ্যান চলাচল করে। এদের মধ্যে কিছু সংখ্যক ইজিবাইকের খুলনা সিটি কর্পোরেশনের লাইসেন্স থাকলেও অধিকাংশ ব্যাটারি চালিত ইজিবাইকগুলো লাইসেন্স বিহীনভাবে চলাফেরা করে।

এছাড়া ব্যাটারি চালিত রিকশা ও ভ্যানের কোন প্রকার সিটি কর্পোরেশন লাইসেন্স দেয় না।  এ সকল ভ্যান রিক্সা গুলো দলীয় ক্ষমতাধর ব্যক্তি ছাড়াও মহলের সুপারিশ ও তদবিরের দ্বারা সিটি কর্পোরেশনের মধ্যে চলাচল করে।  এ সকল ইজিবাইক ও ভ্যান রিক্সাকে মামলা দিতে গেলে উক্ত ক্ষমতাধর ব্যক্তিদ্বয় ফোনের মাধ্যমে মামলা না দেওয়ার জন্য জন্য সুপারিশ।যার কারনেই এ সকল ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা ভ্যানগুলো হরহামেশে খুলনা সিটি কর্পোরেশন এর এলাকাগুলোতে সহজভাবে চলাফেরা করতে পারছে।

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Md. Mofajjal

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ইন্টারন্যাশনাল রিলেশনস রিপোর্টার্স ফোরামের শ্রদ্ধা

কে সি সি  তে অবাধে চলছে ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা, ভ্যান, ইজিবাইক

Update Time : ০৬:০১:১০ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ নভেম্বর ২০২৩

খুলনা সিটি কর্পোরেশনে অবৈধভাবে চলছে ইজিবাইক ভ্যান ও অটোরিকশা।  খুলনা সিটি কর্পোরেশন কর্তৃক নিবন্ধিত প্রায় ১১ হাজারের কাছাকাছি নিবন্ধন থাকলে ও খুলনা সিটিতে প্রায় ২০ হাজারের মতো ব্যাটারি চালিত চালিত ইজিবাই চলাচল করে। একটি নিবন্ধন নাম্বার দিয়ে দুটি বা তিনটি বেশি ব্যাটারি চালিত ইজিবাই রাস্তায় চলাচল করতে দেখা যায়।

এছাড়া পর্যাপ্ত পরিমাণে রয়েছে ইঞ্জিন চালিত রিক্সা,ভ্যান।যার প্রতিটি রিক্সা ও ভ্যান সিটি কর্পোরেশনে নিবন্ধন বর্হিভূত।প্রতিমিনিটে ৩০টির ও অধিক ইঞ্জিন চালিত ভ্যান রিক্সা এবং ইজিবাইক রাস্তায় চলাচল করতে দেখা যায়। যার ফলে রাস্তাঘাটে সৃষ্টি হয় পর্যাপ্ত পরিমাণে যানজট। মাঝেমধ্যে পুলিশ প্রশাসনের অভিযান চালু থাকলে তখন সিটিতে এ সকল যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক থাকে। এছাড়া এ সকল যানবাহনের ড্রাইভার দের কোন ড্রাইভিং লাইসেন্স। তাহারা যত্রতত্র গাড়ি দাঁড় করায় এবং যাত্রী ওঠানো নামানো ব্যবস্থা করায়।

এছাড়া এ সকল গাড়িগুলো উচ্চগতি সম্পন্ন হওয়ার কারণে প্রায় ঘটে দুর্ঘটনা।  এ সকল তিন চাকার পরিবহনগুলো চলাচল করে হাইওয়ে রোডে।এ সকল যানবাহন সমূহের রয়েছে একটি অনিবন্ধিত সমিতি যাতে সকল ড্রাইভার দের নিকট থেকে চাঁদা তুলে এ সকল টাকাগুলোকে বিভিন্ন মহলকে বিনিময়ের মাধ্যমে যানবাহন গুলি হরহামেশে চলাফেরা করছে। এ সকল যানবাহন চালকের নাই কোন কারিগরি শিক্ষা। এ সকল যানবাহনের চালকেরা যাত্রী উঠানোর জন্য পাল্লা দিয়ে গাড়ি চালায় তারা বিভিন্ন সময় মুখোমুখি সংঘর্ষে লিপ্ত হয়।

 

এ ব্যাপারে কথা বলতে গেলে খুলনা ট্রাফিক সার্জেন্ট সার্জন পীযুষ সাহেব জানায় খুলনাতে অগণিত পরিমাণে ব্যাটারি চালিত ইজিবাইক রিক্সা ও ভ্যান চলাচল করে। এদের মধ্যে কিছু সংখ্যক ইজিবাইকের খুলনা সিটি কর্পোরেশনের লাইসেন্স থাকলেও অধিকাংশ ব্যাটারি চালিত ইজিবাইকগুলো লাইসেন্স বিহীনভাবে চলাফেরা করে।

এছাড়া ব্যাটারি চালিত রিকশা ও ভ্যানের কোন প্রকার সিটি কর্পোরেশন লাইসেন্স দেয় না।  এ সকল ভ্যান রিক্সা গুলো দলীয় ক্ষমতাধর ব্যক্তি ছাড়াও মহলের সুপারিশ ও তদবিরের দ্বারা সিটি কর্পোরেশনের মধ্যে চলাচল করে।  এ সকল ইজিবাইক ও ভ্যান রিক্সাকে মামলা দিতে গেলে উক্ত ক্ষমতাধর ব্যক্তিদ্বয় ফোনের মাধ্যমে মামলা না দেওয়ার জন্য জন্য সুপারিশ।যার কারনেই এ সকল ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা ভ্যানগুলো হরহামেশে খুলনা সিটি কর্পোরেশন এর এলাকাগুলোতে সহজভাবে চলাফেরা করতে পারছে।