ঢাকা ০২:৪৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম :
Logo অবৈধভাবে চাঁদা উত্তোলন করাকালে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকা হতে ০৪ জন পরিবহন চাঁদাবাজকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০। Logo ফরিদপুর জেলার মধুখালিতে “শ্যালিকার সঙ্গে পরকীয়ার জেরে দুলাভাইকে হত্যা” শীর্ষক চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার পলাতক আসামি শরিফুল শেখ ও তথি বেগম’কে ফরিদপুরের কোতোয়ালি এলাকা হতে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০। Logo মুন্সীগঞ্জ জেলার টংগীবাড়ী এলাকা হতে ২৩.৫ কেজি গাঁজাসহ ০১ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০ Logo গ্রাম পুলিশ সদস্যকে ধর্ষণের অভিযোগে এক ইউপি চেয়ারম্যান ও সহযোগীর বিরুদ্ধে মামলা Logo আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ইন্টারন্যাশনাল রিলেশনস রিপোর্টার্স ফোরামের শ্রদ্ধা

গাঁজা থেকে ক্যান্সারের ওষুধ তৈরি করবে ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :  গাঁজা থেকে তৈরি হবে ওষুধ। এতে প্রশমিত হবে ক্যান্সারের যন্ত্রণা কিংবা এপিলেপ্সি। এমনই আশার আলো দেখাচ্ছেন ভারতীয় বিজ্ঞানীরা। আগামী এক বছরের মধ্যে সেই ওষুধ তৈরি করবে বলে জানাচ্ছে কাউন্সিল ফর সায়েন্টিফিক অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিসার্চ। আপাতত অ্যান্ডভান্স স্টেজের ট্রায়াল চলছে বলে জানা গিয়েছে।

জানা যাচ্ছে, দুটি নতুন ওষুধ আসতে চলেছে, যা বর্তমানে ব্যবহৃত ওষুধের তুলনায় অনেক বেশি কার্যকর হবে। যেমন বর্তমানে মরফিন যন্ত্রণা উপশমের জন্য ব্যবহার করা হয়। কিন্তু তার কিছু কুফল রয়েছে। গাঁজার ক্ষেত্রে সেটাই নেই। এছাড়া কেমোথেরাপি চললে যেসব শারীরিক অসুবিধা হয়, সেগুলির ক্ষেত্রেও কার্যকর হবে এই নতুন ওষুধ।

দুটি ওষুধেরই মূল উপাদান হবে ‘ক্যানাবিডিয়ল।’ ক্যানাবিস গাছ থেকে এই উপাদান পাওয়া যায়। এটি নন-সাইকোঅ্যাকটিভ। অর্থাৎ গাঁজার মত এর থেকে মানসিক কোনও এফেক্ট পড়বে না। এই ধরনের ওষুধ ইউরোপ-আমেরিকাতেও ব্যবহার হয়।

কাউন্সিল ফর সায়েন্টিফিক অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিসার্চ-এর ডিরেক্টর রাম বিশ্বকর্মা জানিয়েছেন, ক্যানাবিস আসলে খুবই উপকারী। তবে এটা নিয়ে কিছু ভুল ধারনা রয়েছে। এটির অপব্যবহার করা হয়ে থাকে।

Tag :
আপলোডকারীর তথ্য

অবৈধভাবে চাঁদা উত্তোলন করাকালে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকা হতে ০৪ জন পরিবহন চাঁদাবাজকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০।

গাঁজা থেকে ক্যান্সারের ওষুধ তৈরি করবে ভারত

আপডেট টাইম : ০২:১৫:৫৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৫ নভেম্বর ২০১৮

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :  গাঁজা থেকে তৈরি হবে ওষুধ। এতে প্রশমিত হবে ক্যান্সারের যন্ত্রণা কিংবা এপিলেপ্সি। এমনই আশার আলো দেখাচ্ছেন ভারতীয় বিজ্ঞানীরা। আগামী এক বছরের মধ্যে সেই ওষুধ তৈরি করবে বলে জানাচ্ছে কাউন্সিল ফর সায়েন্টিফিক অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিসার্চ। আপাতত অ্যান্ডভান্স স্টেজের ট্রায়াল চলছে বলে জানা গিয়েছে।

জানা যাচ্ছে, দুটি নতুন ওষুধ আসতে চলেছে, যা বর্তমানে ব্যবহৃত ওষুধের তুলনায় অনেক বেশি কার্যকর হবে। যেমন বর্তমানে মরফিন যন্ত্রণা উপশমের জন্য ব্যবহার করা হয়। কিন্তু তার কিছু কুফল রয়েছে। গাঁজার ক্ষেত্রে সেটাই নেই। এছাড়া কেমোথেরাপি চললে যেসব শারীরিক অসুবিধা হয়, সেগুলির ক্ষেত্রেও কার্যকর হবে এই নতুন ওষুধ।

দুটি ওষুধেরই মূল উপাদান হবে ‘ক্যানাবিডিয়ল।’ ক্যানাবিস গাছ থেকে এই উপাদান পাওয়া যায়। এটি নন-সাইকোঅ্যাকটিভ। অর্থাৎ গাঁজার মত এর থেকে মানসিক কোনও এফেক্ট পড়বে না। এই ধরনের ওষুধ ইউরোপ-আমেরিকাতেও ব্যবহার হয়।

কাউন্সিল ফর সায়েন্টিফিক অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিসার্চ-এর ডিরেক্টর রাম বিশ্বকর্মা জানিয়েছেন, ক্যানাবিস আসলে খুবই উপকারী। তবে এটা নিয়ে কিছু ভুল ধারনা রয়েছে। এটির অপব্যবহার করা হয়ে থাকে।